মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২nd ফেব্রুয়ারি ২০১৬

এক নজরে মানব সম্পদ উন্নয়ন কর্মসূচি

 

মানব সম্পদ উন্নয়ন ও আত্ম-কর্মসংস্থান

জাতীয় মহিলা প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন একাডেমী- মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর

কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (প্রধান কার্যালয়)

শহীদ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা প্রশিক্ষণ একাডেমী, জিরানী, গাজীপুর

বেগম রোকেয়া প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ময়মনসিংহ

মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জিরাবো, সাভার, ঢাকা

মহিলা হস্তশিল্প ও কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, রাজশাহী

মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, বাগেরহাট

মহিলা হস্তশিল্প ও কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, দিনাজপুর

মা ফাতেমা (রা:) মহিলা প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন কমপ্লেক্স , সারিয়াকান্দি, বগুড়া

জাতীয় মহিলা প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন একাডেমী

ফাউন্ডেশন প্রশিক্ষণ

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের পেশাগত মান ও কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ফাউন্ডেশন প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। 
ষ্টাফ উন্নয়ন প্রশিক্ষণ
মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের জেলা, উপজেলা কার্যালয়ের মহিলা বিষয়ক কার্যক্রমে গতিশীলতা আনয়নের লক্ষ্যে কর্মচারীদের পেশাগত মান উন্নয়নে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। 

জেন্ডার প্রশিক্ষণ
অধিদপ্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের জেন্ডার সমতা ও মূলধারাকরণ বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

কম্পিউটার প্রশিক্ষণ

দাপ্তরিক কাজে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং তথ্য প্রযুক্তিতে জেলা/উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়কে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে প্রধান কার্যালয়সহ মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। প্রশিক্ষণ শেষে পর্যায়ক্রমে সকল জেলা/উপজেলায় কম্পিউটার প্রদান করা হয়।

আমার পরিবার আমার ফুল বাগান শীর্ষক প্রশিক্ষণঃ
কর্মজীবী নারী/কর্মকর্তাদের উপর উর্পিত দাপ্তরিক, পারিবারিক ও সামাজিক কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করা।পরিবারের সদস্যদের জেন্ডার সংবেদনশীল মনোভাব তৈরি করা।গৃহাস্থালীর কাজ ও দায়দায়িত্ব পালনে অংশীদারিত্বের সংস্কৃতিতে উৎসাহিত করা। জেন্ডার সমতাভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণে পুরুষের অংশগ্রহণ উৎসাহিত করার লক্ষ্যে প্রাথমিক ভাবে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের পরিবারের সদস্য তথা স্বামী-স্ত্রী অংশগ্রহণে ০৫ দিন ব্যাপি ‘ আমার পরিবার আমার ফুল বাগান’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে। গত অর্থ বছরে তিন ব্যাচে ৩০ জন দম্পতিকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। বর্তমান অর্থ বছরে ১০ দম্পতিকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

 জাতীয় মহিলা প্রশিক্ষণ উন্নয়ন একাডেমীর ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত তথ্যাদি

বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ

ক্রঃ নং

প্রশিক্ষণের বিষয়

প্রশিক্ষণার্থীদের সংখ্যা

১.

দর্জি বিজ্ঞান

৪৮ জন

২.

এমব্রয়ডারী

৩১ জন

৩.

ব্লক বাটিক এন্ড টাইডাই­

২১ জন

কর্মকর্তা কর্মচারীদের ইন সার্ভিস প্রশিক্ষণঃ

১.

উচ্চতর জেন্ডার বিষয়ক প্রশিক্ষণ (কর্মকর্তা)

৬ ব্যাচ ১৮২জন

২.

 উচ্চতর কম্পিউটার প্রশিক্ষণ (কর্মকর্তা)

৮ ব্যাচ ১৪৭ জন

৩.

পারিবারিক সহিংসতা ( প্রতিরোধ ও সুরক্ষা) আইন ২০১০ এর উপর প্রশিক্ষণ

৫ ব্যাচ

৪.

আর্থ, প্রশাসনিক ও ব্যবস্থাপনা কর্মসূচি

 ৪ ব্যাচ ৯৩ জন

৫.

আর্থিক,প্রশাসনিক ও পিপিআর

২ ব্যাচ ৪৯ জন

৬.

টিম বিল্ডিং প্রশিক্ষণ

২ ব্যাচ ৫০ জন

৭.

পদোন্নতিপ্রাপ্ত ও চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের ফাউন্ডেশন প্রশিক্ষণ

১ ব্যাচ ২৫ জন

 

বিভিন্ন প্রশিক্ষণে মনোনয়নঃ

১.

আঞ্চলিক লোক প্রশাসন কেন্দ্র, রাজশাহী, খুলনা, চট্টগ্রাম, লোক প্রশাসন কেন্দ্র, সাভার (৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী)

১৭৮ জন

২.

পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমী

০৭ জন

৩.

বিদেশ ট্রেনিং

০৮ জন

৪.

RPATC & BPATC

০৮ জন

মহিলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (WTC)

গ্রামীণ দু:স্থ মহিলাদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির ক্ষেত্রে WTC একটি গুরত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি। জেলা পর্যায়ে এ কর্মসূচির আওতায় প্রতি জেলায় ৫০ জন এবং পুরাতন ১৩৬ উপজেলায় দু:স্থ, দরিদ্র ও স্বল্প শিক্ষিত মহিলাকে বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে।  ৬৪টি জেলায় কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। প্রতি জেলায় ৫টি ট্রেডে ১০ জন করে ৪ টি ব্যাচে মোট ২০০ জনকে প্রতি বছর ট্রেড প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রতি জেলায় ৫ টি ট্রেডে আলাদা ট্রেড ভিত্তিক প্রশিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়। প্রশিক্ষকদের মাসিক ৪৫০০ টাকা করে ভাতা প্রদান করা হয়।

ক্রঃনং

      বিষয়                                       

 ব্যাচ     

           সংখ্যা                      

১.

দর্জি বিজ্ঞান

৪ ব্যাচ

১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

২.

এমব্রডারী/ব্লক বাটিক

৪ ব্যাচ

১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

৩.

বিউটফিকেশন

 ৪ ব্যাচ

 ১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৪.

মোবাইল ফোন  সার্ভিসিং

 ৪ ব্যাচ

 ১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৫.

নার্সারি/বেকারী

 ৪ ব্যাচ

 ১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৬.

ফুল/পুতুল/শো পিছ তৈরী

 ৪ ব্যাচ

 ১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

 

কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (প্রধান কার্যালয়)

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ৯ম তলায় অবস্থিত। এ কেন্দ্রে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ২টি উন্নতমানের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ল্যাব রয়েছে এখানে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে নারীবান্ধব পরিবেশে দক্ষ প্রশিক্ষক দ্বারা উন্নতমানের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে। ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে ১০৫ জন প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে এবং মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত অধিদপ্তরাধীন কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কার্যক্রমটি এই কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমেই পরিচালিত হয়ে থাকে। ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে অধিদপ্তরের ১৮২ জন কর্মকর্তাকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। ফেব্রুয়ারি ২০১৫ পর্যন্ত ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে অধিদপ্তরের ৭৫ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

সারণী

ক্রঃ নং

কোর্সের নাম

কোর্সের মেয়াদ

কোর্স ফি

১।

Computer Basic (MS-Word, Excel & PowerPoint)

৭২ ঘন্টা

২,৫০০/-

 

 

 

 

৩।

Graphic Design (Photoshop, Illustrator 

৪৮ ঘন্টা

৪,০০০/-

৪।

Statistical Data Analysis (SPSS & Excel)

৪৮ ঘন্টা

৫,০০০/-

৫।

Website Design & Development with HTML, CSS, JavaScript,  PHP & My SQL

৭২ ঘন্টা

৮,০০০/-

 

শহীদ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা প্রশিক্ষণ একাডেমী, জিরানী, গাজীপুর

নারীর দক্ষতা উন্নয়ন এবং ক্ষমতায়নে মহিলা বিষযক অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত জিরানী গাজীপুরে অবস্থিত শহীদ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা প্রশিক্ষণ একাডেমী গুরম্নতবববপূর্ন ভূমিকা রেখে আসছে্। নিরাপদ আবাসিক এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে দেশের দূর দূরামত্ম থেকে আগত ১৮-৩৫ বৎসর বয়সী মহিলা প্রশিক্ষণার্থীদের আধুনিক গার্মেন্টস টেনলারিং, বিউটিফিকেশন, মোবাইল সার্ভিসিং ও বেসিক কম্পিউটার বিষয়ে ৬ মাস মেয়াদে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে । প্রশিক্ষণার্থীদের বিনামূল্যে হোস্টেলে অবস্থান, খাবারের সুব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া মাসিক ৩০০/= টাকা হারে ভাতা প্রদান করা হয়।

২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত তথ্যাদিঃ

  ক্রঃ নং      

        বিষয়                       

  ব্যাচ        

             সংখ্যা                               

 ১.

আধুনিক গার্মেন্টস

 ৪ ব্যাচ

 ৩২ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ২.

কম্পিউটার

 ৪ ব্যাচ

 ২৬ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৩.

টেইলারিং/ ব্লক বাটিক

 ৪ ব্যাচ

 ১৮ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৪.

বিউটিফিকেশন

 ৪ ব্যাচ

 ১৪ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৫.

মোবাইল ফোন সার্ভিসিং

 ৪ ব্যাচ

 ১০ জন (প্রতি ব্যাচে)

 ৬.

চামড়া শিল্পের উপর প্রশিক্ষণ

 ১ ব্যাচ

 ৪০ জন

 ৭.

রেডিমেন্টস গার্মেন্টস (মিড লেভেল ওয়ার্কস)

 

 জুলাই’১৪ থেকে ১ম ব্যাচ শুরূ হয়েছে

 

বেগম রোকেয়া প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ময়ময়নসিংহ

নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের নামে ১৯৯৫ সালে দিঘারকান্দা, ময়মনসিংহে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে বেগম রোকেয়া প্রশিক্ষণ কেন্দ্র । নিরাপদ আবাসিক পরিবেশে এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ৩ মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণ কোর্সে ৫০ জন করে ৪টি ব্যাচে বছরে মোট ২০০ জন মহিলাকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। আধুনিক পদ্ধতিতে হাউজ কিপিং এন্ড কেয়ার গিভিং এবং বিউটিফিকেশন কোর্সে তাত্বিক ও হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তিরূপে গড়ে তুলতে এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র টি  অবদান রাখছে। উল্লিখিত প্রশিক্ষণ ছাড়াও পরিবার পরিকল্পনা, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ, প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিচর্যা ও মহিলাদের আইনগত অধিকার বিষয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের সচেতন করা হয়ে থাকে।

মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জিরাবো, সভার, ঢাকা

দেশের সার্বিক উন্নয়নে মহিলাদের অংশগ্রহণ আজ দৃশ্যমান। কৃষি ক্ষেত্রেও পিছিয়ে নেই দেশের নারী সমাজ। ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার জিরাবো, নরসিংহপুরে স্থাপন করা হয়েছে আবাসিক মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। দেশের দূর দূরান্ত থেকে প্রশিক্ষনার্থীরা এখানে নিরাপদ আবাসন সুবিধায় হাতে কলমে নারী বান্ধব পরিবেশে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে থাকে। মাসরুম চাষ ও বাংলাদেশ পর্যটন কর্রপোরেশন এর সহায়তায় খাদ্য রন্ধন ট্রেডে বছরে ৪ টি ব্যাচে ৩ মাস করে ২০০ জন প্রশিক্ষণার্থী দক্ষতার সাথে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছে। প্রতি বছরে ৩ হতে ৪ জন প্রশিক্ষণাথী জাপান সরকারের অনুদানে জাপানে উন্নত প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে থাকে।  এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমে দেশের হত দরিদ্র নারীরা রুটি, বিস্কুট ও উন্নত খাবার তৈরী পূর্বক বাজারজাত করে আর্থিকভাবে সাবলম্বী হতে সক্ষম হবে।

মানব সম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র, রাজশাহী

জেন্ডার সংবেদনশীল মনোভাব তৈরীর লক্ষ্যে ‘আমার পরিবার আমার ফুল বাগান’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের আওতায় ওয়ার্কিং কাপোলদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

 ক্রঃ নং 

                      বিষয়                   

  ব্যাচ              

      সংখ্যা                    

 ১।

 ওয়ার্কিং কাপোলদের  ‘আমার পরিবার
আমার ফুল বাগান’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ                   

  ৩ ব্যাচ

  ১০জন কাপোল  
 (প্রতি ব্যাচে)

 ২।

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের নিবন্ধনকৃত সমিতি

 

 

 

মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, বাগেরহাট

কৃষি ক্ষেত্রেও পিছিয়ে নেই দেশের নারী সমাজ। খুলনা বিভাগের বাগেরহাট জেলায় স্থাপন করা হয়েছে আবাসিক মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। দেশের দক্ষিণ অঞ্চলের প্রশিক্ষনার্থীরা এখানে নিরাপদ আবাসন সুবিধায় হাতে কলমে নারী বান্ধব পরিবেশে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে থাকে। আধুনিক গার্মেন্টস, কম্পিউটার ও মধুচাষ বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত তথ্যাদিঃ

  ক্রঃ নং     

          বিষয়                             

      ব্যাচ      

     সংখ্যা                      

 ১.

আধুনিক গার্মেন্টস

   ৪ ব্যাচ

  ২৫ জন (প্রতি ব্যাচ)

 ২.

কম্পিউটার

    ৪ ব্যাচ

 ২৫ জন (প্রতি ব্যাচ)

 ৩.

মধু চাষ

     ৪ ব্যাচ

 ২৫ জন (প্রতি ব্যাচ)

 

মহিলা হস্তশিল্প কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, দিনাজপুর

নিরাপদ আবাসিক পরিবেশে নারীর দক্ষতা উন্নয়নে প্রশিক্ষণ প্রদানের ক্ষেত্রে দিনাজপুর মহিলা হস্তশিল্প ও কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভুমিকা অনস্বীকার্য। এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমে অত্র অঞ্চলের সল্প শিক্ষিত এবং শিক্ষিত নারীদের আধুনিক গার্মেন্টস, কম্পিউটার ও দর্জি বিজ্ঞান কোর্সে ৩ মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

মা ফাতেমা (রা:) মহিলা প্রশিক্ষণ উন্নয়ন কমপে­ক্স, সারিয়াকান্দি, বগুড়া

দেশের সুষম উন্নয়নে নারী অংশ গ্রহণ আজ দৃশ্যমান। নারীর দক্ষতা বৃদ্ধি ও উন্নয়ন কল্পে বগুড়া জেলাধীন সারিয়াকান্দি উপজেলায় মা ফাতেমা (রা:) মহিলা প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন কমপে­ক্স প্রস্থাপন কারা হয়েছে। এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে নিরাপদ আবাসিক সুবিধায় আধুনিক গার্মেন্টস, বেকারী এন্ড পেষ্ট্রি ও টেনলরিং কোর্সে ৩ মাস মেয়াদে প্রশিক্ষন প্রদান করা হলেও গত জুলাই/১৪ হতে সেপ্টেম্বর/১৪ মহিলা প্রশিক্ষনার্থীদেরকে থ্রিহুইলার ড্রাইভার ও মটর সাইকেল মেকানিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। গত ১৪/১০/১৪ তারিখ ‘দি ডেইলি ষ্টার’ পত্রিকায় এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।


Share with :

Facebook Facebook